রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯

সেই ইরানি তেল ট্যাংকারকে এবার আটকের নির্দেশ দিল আমেরিকা

জিব্রাল্টার উপকূলে অবস্থানরত ইরানি তেল ট্যাংকারটিকে এবার আটকের নির্দেশ দিয়েছে আমেরিকার একটি আদালত। জিব্রাল্টারের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ সুপার তেল ট্যাংকারটি মুক্ত হয়ে যখন ইরানে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিল তখন মার্কিন আদালতের নির্দেশ জারি হলো।

আমেরিকার কলম্বিয়ার আঞ্চলিক আদালত ওই নির্দেশ জারি করে দাবি করেছে, তেল ও তেলজাত পণ্য রপ্তানিলব্ধ আয় দিয়ে সিরিয়াকে সহযোগিতা করার কাজে আমেরিকার আর্থিক ব্যবস্থাকে অবৈধভাবে ব্যবহার করার দায়ে এ নির্দেশ জারি করা হলো।

গতমাসের গোড়ার দিকে জিব্রাল্টার প্রণালীর আন্তর্জাতিক পানিসীমা থেকে ২১ লাখ ব্যারেল তেলবাহী ইরানের সুপার তেল ট্যাংকার ‘গ্রেস-ওয়ান’ আটক করে ব্রিটেন। আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ওই আটকের ঘটনাকে ‘ব্রিটিশ জলদস্যুতা’ বলে অভিহিত করে তেহরান। তবে জিব্রাল্টারের সুপ্রিম কোর্ট বৃহস্পতিবার তেল ট্যাংকারটিকে মুক্ত করে দেয়ার নির্দেশ দেয়। আমেরিকার পক্ষ থেকে ট্যাংকারটির আটকাদেশ বৃদ্ধি করার আবেদন জানানো সত্ত্বেও জিব্রাল্টারের আদালত ওই রায় দেয়।

আমেরিকার আবেদন সত্ত্বেও ইরানি তেল ট্যাংকার মুক্ত করে দেয়ার নির্দেশকে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা ইরানের মোকাবিলায় আমেরিকা ও ব্রিটেনের বড় ধরনের পরাজয় বলে উল্লেখ করেছেন। জিব্রাল্টারের আদালত বৃহস্পতিবার তেল ট্যাংকারটি মুক্ত করার নির্দেশ দিলেও জাহাজের ক্যাপ্টেনসহ আরো কয়েকজন ক্রু পরিবর্তন করার কারণে এটি এখনো জিব্রাল্টার ত্যাগ করেনি।

ব্রিটিশ সরকার দাবি করেছিল, সিরিয়ার ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়নের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে দেশটির জন্য তেল নিয়ে যাওয়ার কারণে ইরানি সুপার তেল ট্যাংকার আটক করা হয়েছে। কিন্তু জিব্রাল্টারের মালিকানা নিয়ে ব্রিটেনের সঙ্গে মতবিরোধে জড়িত স্পেন  বলেছে, ইইউ’র নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের কারণে নয় বরং আমেরিকার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ব্রিটেন ইরানি তেল ট্যাংকার আটক করেছে।

আরো পড়ুন

‘খুবই ক্ষুব্ধ’ হয়েছে আমেরিকা!

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের নাতাঞ্জ পরমাণু স্থাপনায় আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র একজন নারী পরিদর্শককে …