রাজনীতিসর্বশেষ সংবাদসারা বাংলা

সরকার করোনা নিয়ন্ত্রণেও চরম দুর্নীতি করেছে: ফখরুল

সরকার করোনা নিয়ন্ত্রণেও চরম দুর্নীতি করেছে: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগ সরকার করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তিনি বলেন, এই সরকার প্রথম থেকেই করোনা নিয়ন্ত্রণে উদাসীনতার পরিচয় দিয়েছে। সরকার সব কিছুতেই দুর্নীতি করতে চায় এবং করোনা নিয়ন্ত্রণেও চরম দুর্নীতি করেছে। লকডাউনের নাম করে ক্র্যাকডাউন দিয়ে বিএনপির ওপর দমন-নিপিড়ন চালিয়েছে।

সোমবার (১৭ মে) সকালে ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়িতে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়ে প্রমাণ করেছে যে, এই সরকার একটি ব্যর্থ সরকার। এই সরকার দুর্নীতির জন্য, লুটপাটের জন্য জনগণকে দুর্ভোগের শিকার করছে। এই ঈদে লকডাউনের কারণে ৫ জন সাধারণ মানুষ ফেরিতে উঠতে গিয়ে মারা গেল। সরকার কোনও পরিকল্পনা গ্রহণ করল না কেন মানুষের জন্য? সমস্যা তো হচ্ছে সাধারণ মানুষের, যাদের গাড়ি আছে তারা ঠিকই চলাচল করছে। সবসময় সরকার জনগণের প্রতি নিজেদের উদাসীনতার পরিচয় দিচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকার লকডাউনের সুযোগ নিয়ে বিএনপি ও বাম দলের শত শত নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। সকলে একসাথে মিলে করোনা মোকাবিলা না করে সরকার দমন-নিপীড়নে ব্যস্ত। সরকার একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য এই দুর্যোগেও কোনও দলের সাথে মতবিনিময় করছে না।

প্রণোদনা দেওয়ার বিষয়ে দুর্নীতি করা হয়েছে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার প্রণোদনা দিচ্ছে বড় বড় গার্মেন্টস মালিকদের। সাধারণ মানুষ বা বিদেশি রেমিটেন্স যারা নিয়ে আসে তাদের কোনও প্রকার প্রণোদনা সরকার দেয়নি। আর আমাদের কথা তো কোনওদিন সরকার শুনেইনি। পরিকল্পনা আর অব্যবস্থাপনার কারণে এই সরকার করোনা নিয়ন্ত্রণে ও জনগণের সমস্যা নিরসনে ব্যর্থ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সহসভাপতি আল মামুন আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পয়গাম আলী, আনসারুল হক, অর্থ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফসহ বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।