খেলাধুলালিড নিউজসর্বশেষ সংবাদ

শুরুর চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে সাবলিল তামিম ও শান্ত

শুরুর চ্যালেঞ্জ কাটিয়ে সাবলিল তামিম ও শান্ত

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্যান্ডির পাল্লেকেলের সবুজ উইকেটে ব্যাটিংয়ের শুরুটা চ্যালেঞ্জিং ছিল। শ্রীলংকান বোলাররা নানাভাবে বিভ্রান্ত করতে সচেষ্ট বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। খেসারতও দিতে হলো সফরকারীদের। বাম-ডান কম্বিনেশন মেনে সাদমানের জায়গায় একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন সাইফ।

কিন্তু বিশ্ব ফার্নান্দোর বলে পুরোপুরি পরাস্ত হন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। এলবিডাব্লিউ হয়ে বিদায় নেন রানের খাতা খোলবার আগেই। যদিও শুরুতে আম্পায়ার নটআউট দিয়েছিলেন। পরে রিভিউ নেওয়াতেই সাফল্য মেলে শ্রীলঙ্কার।

মুমিনুল হক শুরুতে ব্যাটিং নেওয়ার সময় বলেছিলেন উইকেটটা আর্দ্র। চতুর্থ ইনিংসে সহায়তা পেতে পারেন স্পিনাররা। সেকারণেই ব্যাটিং নিয়েছেন। অপর দিকে ধারাভাষ্যকাররাও বলেছিলেন, শুরুতে কঠিন হলেও উইকেট ধীরে ধীরে ব্যাটসম্যানদের জন্য সহায়ক হয়ে দাঁড়াবে। কিন্তু খেসারতই দিতে হলো সফরকারীদের। বাম-ডান কম্বিনেশন মেনে সাদমানের জায়গায় একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন সাইফ।

শুরু থেকে লঙ্কান বোলারদের দারুণ লেন্থ বিপদ ফেলার চেষ্টা করেছে বাংলাদেশকে। সেটি সামলেই শুরুর ওভারে দুটি চার মেরে সূচনা করেন তামিম। এখনও পর্যন্ত দূর্দান্ত খেলছেন তামিম। অনেকটা ওয়ানডে মেজাজে ব্যাট চালাচ্ছেন।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ এক উইকেট হারিয়ে ৮৩ রান তোলেছে। ২০তম ওভারের খেলা চলছিল। যেখানে ৫৫ বল খেলে তামিম একাই করেছেন ৫২ রান। অনেকটা ওয়ানডে মেজাজে শুরু করেছেন তামিম। নাজমুল ৬৪ বলে ২৮ রানে ব্যাট করছেন।

দলের নিয়মিত ওপেনার সাদমান ইসলাম স্কোয়াডে থাকলেও, তার জায়গায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের একাদশে নেয়া হয়েছিল ডানহাতি সাইফ হাসানকে। কিন্তু এ সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে পারলেন না এ তরুণ। স্কোরারদের বিরক্ত না করে, রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরের পথ ধরেছেন তিনি। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে সুরঙ্গা লাকমলের প্রথম ওভারেই জোড়া বাউন্ডারি হাঁকান তামিম ইকবাল। ওভারের তৃতীয় ও পঞ্চম বলে অনসাইড দিয়েই বাউন্ডারি দুটি মারেন তিনি। কিন্তু বিশ্ব ফার্নান্দোর করার পরের ওভারে এর উল্টোটাই করেন সাইফ।

সঙ্গী সাইফকে হারালেও তামিম পরের ওভারে আবার হাঁকান বাউন্ডারি। এমনকি বিশ্বর ওভারেও তাকে খেলতে দেখা যায় সাবলীলভাবে।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ রাহী ও ইবাদত হোসেন চৌধুরী।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দিমুথ করুনারত্নে (অধিনায়ক), লাহিরু থিরিমান্নে, ওশাদা ফার্নান্ডো, পাথুম নিসানকা, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান ডিকভেলা, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, সুরাঙ্গা লাকমাল, লাহিরু কুমারা ও বিশ্ব ফার্নান্ডো।