অপরাধলিড নিউজ

যশোরে অস্ত্র মামলায় আসামির ১৭ বছরের কারাদণ্ড

বিএনপির ১২১ নেতাকর্মীর কারাদণ্ড

যশোরে অস্ত্র মামলায় মণিরামপুরের চিহ্নিত সন্ত্রাসী সাদ্দাম হোসেনকে পৃথক ধারায় ১৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১০ জানুয়ারি) স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১০ এর বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ শিমুল কুমার বিশ্বাস এ আদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামি সাদ্দাম হোসেন মণিরামপুর উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের মৃত হায়দার আলীর ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সহকারী পিপি শ্যামল কুমার মজুমদার।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ২৫ মে রাতে মণিরামপুর থানা পুলিশের কাছে খবর আসে বাহাদুরপুর গ্রামে এক যুবক অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে অস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছেন। মণিরামপুর থানা পুলিশের একটি টিম তাৎক্ষণিক ওই গ্রামে অভিযান চালায়। রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে পুলিশের হাতে আটক হন সাদ্দাম হোসেন। পরে তার দেহ তল্লাশি করে একটি পাইপগান ও এক রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।এ ঘটনায় মণিরামপুর থানায় অস্ত্র আইনে ও গুলি হেফাজতে রাখার অপরাধে পৃথক দু’টি ধারায় মামলা করেন এসআই নবুয়াত হোসেন। মামলাটি তদন্ত করে মণিরামপুর থানার এসআই শরীফ এনামুল হক ২০১৮ সালের ৩ জুলাই আদালতে সাদ্দামকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট জমা দেন।বুধবার মামলার রায় ঘোষণার দিনে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় অস্ত্র আইনের ধারায় ১০ বছর ও গুলি রাখার অপরাধের আরেকটি ধারায় আরও সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। আসামি সাদ্দাম হোসেন পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করা হয়।