শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশে বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ রয়েছে

বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ রয়েছে উল্লেখ করে বিশ্বের বিনিয়োগকারী দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া। বুধবার বেইজিং-এর হাইডিয়ান ডিস্ট্রিক্টে অনুষ্ঠেয় স্টান্ডিং কমিটি অব হাইডিয়ান পিপলস কংগ্রেসের চেয়ারম্যান লিউ চাং লি এর সাথে বৈঠককালে এ আহ্বান জানান ডেপুটি স্পিকার।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেশ পরিচালনার ক্ষেত্রে তার অসামান্য অবদান ও প্রশাসনিক দক্ষতার কথা তুলে ধরে ডেপুটি স্পিকার বলেন, দেশ স্বাধীনের পর একটি যুদ্ধ বিধস্ত দেশকে সমৃদ্ধ করতে তিনি নানামুখি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলেন। কিন্ত তাকে স্বপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করার পর বাংলাদেশে সামরিক শাসনের উত্থান ঘটে এবং বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা থমকে যেতে থাকে।

১৯৯৬ সালে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাংলাদেশে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ত্বরান্বিত হয় এবং ধারাবাহিকভাবে একের পর এক সূচকে বাংলাদেশ অসামান্য সাফল্য অর্জন করে বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়।

চীন কর্তৃক বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি মেগা প্রকল্পের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এভাবে পারস্পরির সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে বাংলাদেশ অতি অল্প সময়ের মধ্যেই উন্নত বিশ্বের উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছে যাবে, বাংলাদেশের সেই সক্ষমতা রয়েছে।

সকলের সাথে বন্ধুত্ব কারও সাথে শত্রুতা নয়- বাংলাদেশের সংবিধানের এই পররাষ্ট্র নীতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, চীনসহ পার্শ্ববর্তীর সকল দেশের সাথে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে সহমত পোষণ করে। দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধি ও পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে উভয় দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি আরও ত্বরান্বিত হবে বলে মন্তব্য করেন ডেপুটি স্পিকার।

এ সময় বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সদস্য আব্দুল মান্নান এমপিসহ অন্যান্য সদস্য, চীনা প্রতিনিধি দলের সদস্যরা, বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর মো. মনসুর উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরো পড়ুন

সৌদিতে গৃহকর্মী নিয়োগের আগে নিয়োগকর্তার তথ্য খতিয়ে দেখবে দূতাবাস

সৌদি আরবে বাংলাদেশি নারী গৃহকর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে গৃহকর্মী নিয়োগের আগে নিয়োগকর্তার পারিবারিক তথ্য খতিয়ে …