রবিবার, ৭ জুন ২০২০

বাংলাদেশে করোনায় নতুন শনাক্ত ৫ জন, ১৪-১৫ জায়গায় পরীক্ষা শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও পাঁচ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬১ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে, নতুন কেউ মারা যাননি। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ছয় জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৬ জন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘এখন আমাদের প্রায় ১৪-১৫টি জায়গায় পরীক্ষা শুরু হয়ে গেছে। আরও বেশ কয়েকটি জায়গায় পরীক্ষা শুরু হবে। পরীক্ষা করাটা খুবই জরুরি। আমরা আশা করি সকলে পরীক্ষা করার জন্য আসবেন। পরীক্ষা করলে আপনি নিজেও নিরাপদে থাকবেন, জানতে পারবেন আপনার অবস্থাটা। সেই সাথে সাথে আপনার পরিবারকেও সুরক্ষিত রাখতে পারবেন। পরীক্ষা করাতে কোনো দোষ নেই। এটাতে সামাজিক কোনো বাধা নেই। কাজেই আপনারা এই জিনিসটি করবেন। পরীক্ষার মাধ্যমেই আমরা করোনাভাইরাসকে চিহ্নিত করে আস্তে আস্তে এটাকে নির্মূল করতে পারব।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা বাসায় থাকার চেষ্টা করবেন এবং নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখবেন। অযথাই ঘোরাফেরা করবেন না। যখন বাজারে যাবেন, তখনও ভালো দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করবেন। কোথাও জটলা পাকাবেন না। কারণ জটলা পাকালেই সংক্রমণ বেড়ে যায়। যখন বাইরে যাবেন, মাস্ক পরে বাইরে যাবেন। আমাদের কাছে যথেষ্ট পারসোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) রয়েছে। আমরা সকল হাসপাতালে পিপিই দিয়েছি এবং সবসময়ই পিপিই আমরা পেয়ে যাচ্ছি।’

নার্স ও ডাক্তারদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা অনেক কাজ করছেন। আপনারাই সৈনিক, আপনারাই এই সংক্রামকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছেন। কিন্তু, আমরা লক্ষ্য করছি, আমাদের কিছু প্রাইভেট হাসপাতাল সেখানে কাজ কম হচ্ছে। ক্লিনিক ও চেম্বারগুলো অনেকাংশে বন্ধ আছে। আমরা সামাজিক মাধ্যমে জানতে পারছি। আমরা নিজেরাও দেখতে পাচ্ছি। কাজেই এই সময়ে আপনাদের পিছ পা হওয়াটা যুক্তিসংগত নয়। মানুষের পাশে দাঁড়ান। মানুষকে সেবা দেন। এটাই সময়। আমরা কিন্তু এটা লক্ষ্য করছি। পরবর্তীকালে এ বিষয়ে অবশ্যই যা যা ব্যবস্থা নেওয়ার আমরা কিন্তু সে ব্যবস্থা নিতে পিছ পা হবো না।

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রত্যেকটি সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ড করা হয়েছে।  বড় বড় বেশ কয়েকটি হাসপাতাল করোনাভাইরাসের জন্যই শুধু ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেকোনো রোগী যাদের হাঁচি-কাশি আসে, ওই ধরনের রোগীরে বেশি ওই সব হাসপাতালে যাবেন। সেখানে চিকিৎসা পাবেন। ওইসব হাসপাতালে সব ব্যবস্থা আমরা করেছি। সেখানে অনেক ভেন্টিলেটর লাগানো আছে এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো আছে।’

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫১৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২৬টি নমুনা আইইডিসিআর পরীক্ষা করেছে। আইইডিসিআরের বাইরে পরীক্ষা করা ৩টি নমুনা পজিটিভ বলে শনাক্ত হয়েছে। নতুন করে যাঁরা আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের আইসোলেশন শুরু হয়েছে। তাঁদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের শনাক্তকরণ পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

আরো পড়ুন

৬০ লাখ টাকা উদ্ধারের যে গল্প গোয়েন্দা কাহিনিকেও হার মানায়

রাজধানীর পুরান ঢাকার ইসলামপুরে ন্যাশনাল ব্যাংকের একটি গাড়ি থেকে ৮০ লাখ টাকা উধাও হয়ে যায়। …