শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯

জাতীয় ঐক্য পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য সাধারণ নির্বাচন জরুরি: হামাস

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া বলেছেন, গাজা উপত্যকা, পূর্ব জেরুজালেম বা আল-কুদস শহর এবং অধিকৃত পশ্চিম তীরে যে সাধারণ নির্বাচন হতে যাচ্ছে তার মাধ্যমে তার দল ফিলিস্তিনিদের মধ্যকার সমস্ত ভেদাভেদ দূর করে জাতীয় সংহতি পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চায়।

গতকাল (রোববার) গাজা উপত্যকায় এক সংবাদ সম্মেলনে ইসমাইল হানিয়া এ বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে জাতীয় ঐকমত্য রয়েছে। তিনি বলেন, আসন্ন নির্বাচন ফিলিস্তিনিদেরকে বর্তমান অচলাবস্থা থেকে বের করে আনবে এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের ক্ষেত্রে জাতীয় ঐক্য ও সংহতি হবে শক্তিশালী হবে। তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, জাতীয় নির্বাচনের ফলাফলকে হামাস অবশ্যই সম্মান করবে। ইসমাইল হানিয়া বলেন, “ফিলিস্তিনি জনগণ তাদের পছন্দের ব্যাপারে সচেতন আছেন এবং নির্বাচনের ব্যালট বাক্সের ব্যাপারে আমরা মোটেই উদ্বিগ্ন নই।”

ইসমাইল হানিয়া বলেন, “ভেদাভেদ দূর করার জন্য আমরা দায়িত্বশীলতা ও শক্তিমত্তা নিয়ে কাজ করব যাতে জাতীয় সংহতি অর্জন করা যায় এবং অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে একটি রাজনৈতিক ব্যবস্থা করে তোলা যায়।”

তিনি বলেন, আসন্ন নির্বাচনে যে ফলাফলই আসুক না কেন তার প্রতি সম্মান দেখাতে হবে কারণ ২০০৬ সালের সাধারণ নির্বাচনে যে ফলাফল হয়েছিল, অভ্যন্তরীণ এবং বহিঃশক্তির বিরোধিতার কারণে তা বানচাল হয়। হামাস নেতা আরো বলেন, তার দল জাতীয় মুক্তির ব্যাপারে এমন কিছু কাজ করছে যাতে ইহুদিবাদী ইসরাইলি দখলদারকে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড থেকে বহিষ্কার করা যায় এবং ফিলিস্তিনিরা তাদের নিজেদের ভূখণ্ডে যাতে পরিপূর্ণ অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারেন।

আরো পড়ুন

পদত্যাগপত্র জমা দিলেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী; দ্রুত স্থলাভিষিক্ত নির্বাচনের অনুরোধ

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদিল আব্দুল মাহদি সেদেশের সংসদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে অবিলম্বে …