বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০

চীনা সেনাবাহিনীকে যুদ্ধ-প্রস্তুতির নির্দেশ জিনপিং’র, ভারতের প্রতিক্রিয়া না মেলায় বিস্মিত সুব্রমনিয়াম

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার দেশের সেনাদের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিলেও ভারত সরকার কোনও প্রতিক্রিয়া না দেখানোয় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন বিজেপি’র সিনিয়র নেতা সুব্রমনিয়াম স্বামী এমপি।

তিনি আজ (শনিবার) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, চীনা সুপ্রিমো শি জিনপিং প্রকাশ্যে এলএসি’তে মোতায়েন থাকা চীনা সেনাদের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হল- আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে কেউ কোনও জবাব দেয়নি!

সম্প্রতি চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সেদেশের সেনাবাহিনীর উদ্দেশ্যে যুদ্ধের জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে, শক্তি সঞ্চয় ও চূড়ান্ত সতর্কতা বজায় রাখতে বলেছেন। যদিও তার এ ধরণের মন্তব্য কোন দেশকে টার্গেট করে তা স্পষ্ট হয়নি।

অন্যদিকে, গতকাল (শুক্রবার) ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর ভারত-চীন সীমান্তে গোলযোগপূর্ণ এলাকা সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলএসি) অস্ত্রসহ বিপুল সংখ্যক চীনা সেনার উপস্থিতি ভারতের জন্য অত্যন্ত জটিল নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছে। শুক্রবার এশিয়া সোসাইটির ভার্চুয়াল সভায় তিনি এ ধরণের মন্তব্য করেন।

গত ১৫ জুন চীনা সেনাদের সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হন। কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতে, এরপর থেকেই চীনের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কে গভীর ফাটল ধরেছে।

জয়শঙ্কর বলেন, ১৯৯৩ সাল থেকে দু’দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি হয়েছে যা শান্তি ও স্থিতিশীলতার কাঠামো তৈরি করেছিল। ওই চুক্তিগুলোতে বর্ডার ম্যানেজমেন্ট থেকে শুরু করে সেনাদের আচরণ পর্যন্ত সবকিছু শামিল ছিল। কিন্তু এ বছর যা ঘটেছে তা সমস্ত চুক্তি ফাঁকা প্রমাণিত হয়েছে। সীমান্তে বিপুলসংখ্যক চীনা বাহিনী মোতায়েন করা এই সব কিছুর পরিপন্থী বলেও ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর মন্তব্য করেন।

আরো পড়ুন

কাশ্মীরে পাকিস্তানি ড্রোন গুলি করে নামাল ভারতীয় সেনাবাহিনী

জম্মু ও কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার কিরান সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর পাকিস্তানের একটি কোয়াডকপ্টারকে গুলি করে নামাল …