অপরাধআন্তর্জাতিকলিড নিউজসর্বশেষ সংবাদ

যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গাজায় ফের ইসরাইলি বিমান হামলা

গাজায় ফের ইসরাইলি বিমান হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার ওপর আবার বিমান হামলা চালিয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইল। গাজা উপত্যকা থেকে আগুনে বেলুন ছোড়ার অভিযোগ তুলে ইসরাইল বুধবার ভোরে ওই হামলা চালায়। খবর বিবিসির।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এসব তথ্য জানিয়েছে। গণমাধ্যমটি তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলায় হতাহতের তথ্য নিশ্চিত করতে পারেনি।

হামলার বিষয়টি স্বীকার করেছে ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী আইডিএফ। এক বিবৃতিতে আইডিএফ জানায়, গাজা থেকে আগুন বেলুন উৎক্ষেপণের পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে বিমান হামলা চালানো হচ্ছে। তাদের যুদ্ধবিমান খান ইউনুস ও গাজা শহরে হামাসের পরিচালিত সামরিক স্থাপনায় আঘাত করেছে।

ইসরাইলের দমকল সেবার দাবি, মঙ্গলবার গাজা থেকে উৎক্ষেপিত আগুন বেলুনে দক্ষিণ ইসরাইলের অন্তত ২০টি ফসল ক্ষেতে আগুন লেগেছে।

ইসরাইলি হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। হামাসের এক মুখপাত্র জানান, জেরুজালেমে পবিত্র মসজিদ রক্ষায় সাহসী ও প্রতিরোধ অব্যাহত রাখবে।

গত মাসের শুরুতে টানা ১১ দিনের সংঘাতের পর ২১ মে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় হামাস ও ইসরাইল। এরপর এক মাস না যেতেই ফিলিস্তিনে বিমান হামলা চালাল ইসরাইল।

গত মাসের ওই বিমান হামলায় গাজা উপত্যকাকে ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছে ইসরাইলি বাহিনী। বোমা হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন নারী-শিশুসহ শতাধিক ফিলিস্তিনি।

ইসরাইলি বিমান হামলার কয়েক ঘণ্টা আগে অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের ওল্ড সিটিতে মঙ্গলবার পতাকা নিয়ে পদযাত্রা করেছে উগ্রপন্থি ইহুদিরা।

ওই পদযাত্রা থেকে ফিলিস্তিনিদের উদ্দেশে উস্কানিমূলক শ্লোগান দেওয়া হয়েছে। উগ্রপন্থিরা ইসরাইলের পতাকা হাতে স্লোগান দেয় ‘আরবদের কাছে মৃত্যু’, ‘জ্বলতে পারে তোমাদের গ্রাম’ ইত্যাদি।

তাছাড়া পতাকা মিছিলকে কেন্দ্র করে দামেস্ক গেটের দিকে যাওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে ইসরাইলি পুলিশ। এতে ফিলিস্তিনিরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এ ঘটনার পর ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ফের উত্তেজনার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়িহ ইসরাইলিদের এই পতাকা মিছিল বা পদযাত্রাকে উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ড হিসেবে বর্ণনা করেছেন।ফিলিস্তিনিরা ইহুদিদের পদযাত্রার বিরুদ্ধে ‘ক্ষোভ প্রকাশের দিন’ পালনের আহ্বান জানিয়েছে। তথ্যসূত্র: আলজাজির, বিবিসি