বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯

ওয়ার্ল্ড রোবটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে ১৩তম বাংলাদেশ

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সদ্য অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড রোবোটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে রোবো রেস সেগমেন্টে ১৩তম স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্বকারী টিম অ্যাটলাস। বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন ভারতে অবস্থানরত টিম অ্যাটলাসের টিম লিডার সানী জুবায়ের।

গত ২৩ থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড রোবটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে ৪০টি দেশের মোট ২৫০টি দল অংশগ্রহণ করে। প্রথম থেকে দ্বাদশ পর্যন্ত স্থান দখল করে নেয় ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে প্রতিনিধিত্বকারী দলগুলো। সে ক্ষেত্রে ভারতের পরে বাংলাদেশই ভারতসহ বিশ্বের অন্য দেশগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে ১৩তম স্থান নিশ্চিত করেছে।

টিম অ্যাটলাসের পাঁচ সদস্যের মধ্যে তিনজনই বর্তমানে ঢাকা কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে অধ্যায়নরত। তারা হলেন- টিম লিডার সানী জুবায়ের, সদস্য মীর তানজিদ ও মারুফ। টিমের অন্য দুই সদস্য মীর সাজিদ ঢাকা সিটি কলেজে এবং সিফাত তন্ময় মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়নরত।

টিমের সাফল্য নিয়ে টিম লিডার সানী জুবায়ের  বলেন, আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি এবং বাংলাদেশের জন্য সর্বোচ্চ ভালো স্থানটা আনতে চেষ্টা করছি। যেটা আমাদের এর আগের বিভিন্ন প্রতিযোগিতার ফলাফলই বলে। এবারও আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়েছি। আমাদের আগে যে দলগুলো ছিল সব ভারতের। যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়াসহ বিশ্বের অন্য দেশগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে আমরা ভারতের পর দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ১৩তম অবস্থান অর্জন করেছি।

‘আমরা আমাদের ফলাফল নিয়ে খুশি। পরবর্তীতে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব যাতে বাংলাদেশের পতাকা সবার উপরে থাকে।’

আগামীতে যুক্তরাষ্ট্রের নাসা কর্তৃক আয়োজিত ইন্টারন্যাশনাল প্রতিযোগিতায় টিম অ্যাটলাস অংশ নেবে বলেও জানান তিনি।

গত কয়েক বছর ধরে রোবটিক্সের বিভিন্ন প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছে ‘টিম অ্যাটলাস’। দলটি এর আগেও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন রোবটিক্স প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের হয়ে যোগ দেয়। টিম অ্যাটলাস আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে পুরস্কার পাওয়ার সুবাদে বিশ্ব পরিসরেও পরিচিতি লাভ করেছে।

উল্লেখ্য, এর আগে আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে প্রথম স্থান, মেক্সেলারেশন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) আয়োজিত টেকনিভ্যাল ২০১৮-তে চ্যাম্পিয়ন এবং ন্যাশনাল রোবটিক ফেস্টিভাল ২০১৭-তে চ্যাম্পিয়ন হয় দলটি।

আরো পড়ুন

এলসিডিতে ১১০০ কোটি ডলার স্যামসাংয়ের

আরও উন্নত’ ডিসপ্লে বানানোর লক্ষ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার এলসিডি কারখানায় ১১০০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা …